Connect with us

North East

ভাষা শহিদ সুদেষ্ণা সিনহাকে স্মরণ সর্বধর্ম সমন্বয় সভা’র

Published

on

IMG-20200319-WA0005১৬ মার্চ অসমের পঞ্চদশ মাতৃভাষা শহিদ দিবসকে মর্যাদা সহকারে স্মরণ করল বরাক উপত্যকা সর্বধর্ম সমন্বয় সভা’র কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী পরিষদ। ঐতিহাসিক এই দিনটির স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে সংস্থার কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক এইচএম আমির হোসেন বলেন, শহিদ কমলা ভট্টাচার্য
আর শহিদ সুদেষ্ণা সিনহা দুটি বন্ধনীর নাম। মাঝখানে উজ্জ্বল তেরোটি জাজ্বল্যমান প্রদীপ শিখা। সব মিলিয়ে পঞ্চদশ।
আসামের বরাক উপত্যকায় বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরীদের দীর্ঘ ভাষা আন্দোলনের ইতিহাসে ১৬ মার্চ একটি স্মরনীয় দিন।
১৯৫৫ সাল থেকে শুরু হওয়া এই আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় ভাষাবিপ্লবীরা বরাক উপত্যকায় ১৯৯৬ সালের মার্চ মাসে ৫০১ ঘণ্টার রেলপথ-রাজপথ অবরোধ কর্মসূচি ঘোষণা করে। ১৬ মার্চ অসমের পাথারকান্দির কলকলিঘাট রেলস্টেশনে আন্দোলনকারীদের একটি মিছিলে ভারতীয় পুলিশ গুলিবর্ষণ করলে ঘটনাস্থলে গুলিতে প্রাণ হারান বত্রিশ বছরের তরুণী সুদেষ্ণা সিংহ।
এই গুলিচালনায় আহত হন অরুণ সিংহ, প্রমোদিনী সিংহ, কমলাকান্ত সিংহ, দীপংকর সিংহ, প্রতাপ সিংহ, নমিতা সিংহ, রত্না সিংহ, বিকাশ সিংহ, শ্যামল সিংহ-সহ আরো অনেকে।
এ ঘটনায় অসংখ্য ভাষাবিদ্রোহী আহত হন এবং ব্যাপক ধরপাকড় হয়। বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী ভাষা স্বীকৃতির আন্দোলনকে উপেক্ষা করতে পারেনা আসাম সরকার। অবশেষে ২০০১ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি বরাক উপত্যকার ১৫২টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী ভাষায় শিক্ষাদান চালু করে। এরপর ২০০৬ সালের ৮ মার্চ ভারতের সর্বোচ্চ ন্যায়ালয় বা সুপ্রীমকোর্টের এক রায়ের মাধ্যমে বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী ভাষাকে ভারতের একটি স্বতন্ত্র ভাষার স্বীকৃতি দেওয়া হয়।
আমাদের অস্তিত্ব ও সম্মান রক্ষার যে কোনও রকমের প্রতিরোধ চেতনায় এই দিনটি উজ্জ্বল, ভাস্বর ও প্রেরণাদায়িনী বলেন এইচএম আমির হোসেন, সুর্যপ্রকাশ সিনহা, আহমদ হোসেন লস্কর।
সংস্থার পক্ষে রিন্টি দাস প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন

Continue Reading

North East

সাংবাদিক সুবীর দত্তের পিতৃ বিয়োগ

Published

on

যুব দর্পণ প্রতিনিধি, ২৪ জুন, শিলচর :: বিশিষ্ট সাংবাদিক সুবীর দত্তের পিতা সুকুমার দত্ত আজ সকালে ত্রিপুরার কৈলাসহর সরকারী জেলা হাসপাতালে শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। গত দুই দিন থেকে হৃদরোগ জনিত কারণে উনাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল । উল্লেখ্য যে, প্রয়াত সুকুমার দত্তের জন্ম ২৯ সেপ্টেম্বর ১৯৩১ সালে। মুরারি চাঁদ কলেজ থেকে আই এস সি পাশ করে।, পরবর্তী সময়ে কোলকাতার বঙ্গবাসী কলেজ থেকে বি এস সি পাশ করে অটোমোবাইল ও রেডিও টেকনিশিয়ান এ ডিপ্লোমা কোর্স করেছেন জর্জ টেলিগ্রাফ কোলকাতা থেকে। তারপর ১৯৬৫ সালে ত্রিপুরা রাজ্যে এসে ICAT ডিপার্টমেন্টে চাকরিতে যোগদান করে ১৯৯১সালে অবসর গ্রহণ করেছেন।
উনি রেখে গেছেন স্ত্রী এক ছেলে ,এক মেয়ে , পুত্রবধূ সহ অসংখ্য শুভাকাঙ্ক্ষী

Continue Reading

Barak Valley

শিলচরে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করলো গৈরিক ভারত

Published

on

যুব দর্পণ প্রতিবেদন, ১৫ জুন ২০২১ ইং, শিলচর :: করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও কার্ফুর ফলে অনেক মধ্যবিত্ত পরিবারের আর্থিক অবস্তা শোচনীয় , এই কঠিন পরিস্থিতিতে শিলচরের মালুগ্রামে আবারও ত্রাণ বিতরণ করল সেচ্ছাসেবী সংগঠন ” গৈরিক ভারত ” । আজ মঙ্গলবার করোনায় আক্রান্ত বৃহত্তর মালুগ্রামের বিভিন্ন অঞ্চলে গৈরিক ভারতের শিলচর নগর সভাপতি কানাই দেবনাথের ব্যবস্থাপনায় ও সংগঠনের বরাক উপত্যকার কার্যকরি সভাপতি সুমিত রঞ্জন দাস, কাছাড় জেলার কার্যকরি সভাপতি টুটুল ভট্টাচার্য ও শিলচর নগর সাধারণ সম্পাদক সঞ্জীব নাথের বিশেষ উদ্যোগে , করোনার এই দুঃসময়ে চাউল,আলু, ভোজ্য তেল, সোয়াবিন, বিস্কুট, সহ বিভিন্ন খাদ্য সামগ্রী বন্টন করা হয়। সম্পূর্ণ সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে, অত্যন্ত সুশৃংখলভাবে এই খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কর্মসূচি পালন করা হয়।এদিনের ত্রাণ বন্টন কর্মসূচি চলাকালীন সময়ে গৈরিক ভারতের পক্ষে কাছাড় জেলার কার্যকরি সভাপতি টুটুল ভট্টাচার্য, শিলচর নগর সভাপতি কানাই দেবনাথ, সদস্যা সুপ্তা ধর বলেন, এই সেবা কাজের মাধ্যমে যারা ত্রাণ সামগ্রী সংগ্রহ করেছেন তাদের কাছে গৈরিক ভারত কৃতজ্ঞ। যারা ত্রাণ সামগ্রী সংগ্রহ করেছেন তারা এই ত্রাণ সামগ্রী সংগ্রহ করে, পুণ্য অর্জনের সুযোগ করে দেওয়ার জন্য গৈরিক ভারতের কর্মকর্তারা তাদের কৃতজ্ঞতা জানান। আজকের এই ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের সময় কাছাড় জেলার কার্যকরি সভাপতি টুটুল ভট্টাচার্য,শিলচর নগর সভাপতি কানাই দেবনাথ, শিলচর নগর সাধারণ সম্পাদক সঞ্জীব নাথ, বিপ্লব রায়, সুদীপ রবিদাস, গোবিন্দ সিং, সুপ্তা ধর সহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

Continue Reading

North East

SPARKS MRS ASSAM শিরোপা অর্জন করলেন শিলচরের ঝনকা ঘোষ পাল

Published

on

যুব দর্পণ সাংস্কৃতিক প্রতিনিধি, ২৪ ফেব্রুয়ারি, শিলচর :: উত্তর পূর্বাঞ্চলের অন্যতম জনপ্রিয় ফ্যাশন শো ও প্রতিযোগিতা ” SPARK ” Miss, Mrs & Mr Assam এর MRS ASSAM এর শিরোপা অর্জন করলেন শিলচরের গৃহবধূ শ্রীমতি ঝানকা ঘোষ পাল।

স্পার্ক এর উদ্যোগে উত্তর পূর্বাঞ্চল সহ কলকাতা, দিল্লী সহ বিভিন্ন স্হানের কয়েক শতাধিক প্রতিযোগিদের অডিশনের মাধ্যম নির্বাচিত করে ১১ টি জোনে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয় এবং এই ১১ জন জোনের চ্যাম্পিয়নদের নিয়ে গত ১২ ফেব্রুয়ারি আই টি এ মাছখোয়াতে অনুষ্ঠিত হয় প্রতিযোগিতার মেগা ফাইনাল ।

উক্ত প্রতিযোগিতায় বরাক উপত্যকা জোন থেকে জয়ী হয়ে মেগা ফাইনালে নিজের দক্ষতা ও প্রতিভার স্বাক্ষর রেখে Mrs Assam এর শিরোপার সস্মান অর্জন করেন শিলচরের তরুণ নৃত্যশিল্পী ঝনকা ঘোষ পাল । Mrs Assam শিরোপা অর্জন করে শিলচরের সস্মান বাড়ানোর জন্য শ্রীমতি ঝনকা ঘোষ পাল কে বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন, বিশিষ্ট জনেরা উনার উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ কামনা করে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

Continue Reading

Trending