Connect with us

Barak Valley

কোভিড ১৯ :: লক ডাউন ও আমার অভিজ্ঞতা

Published

on

হঠাৎ করে লকডাউন ঘোষনার পর, উপর ওয়ালার পরামর্শ মতো শিলচরে বাসায় চলে আসি। কিছুদিন যাওয়ার পর, এক ধরনের শিথিলতা অনুভব করি। লকডাউন বাড়তে শুরু করে। সব বন্ধ হতে শুরু করে। টুকটাক বাজার হাট, বাকি সময় ঘরে।
ঐ সময় পরিচয় বরাক উপত্যকার বিখ্যাত সাংবাদিক পীযুষ কান্তি দাসের সাথে। উনার মাধ্যমে পরিচয় হয় শিলচরের সেচ্ছাসেবী সংগঠন ” নেতাজী ছাত্র যুব সংস্থা ” সাধারণ সম্পাদক দীলু দাসের সাথে। হাসিখুশি, প্রানোচ্ছোল যুবক দীলু। পরিচয় হয় ওর সঙ্গী বাপ্পী আচার্য সহ অন্যান্য কর্মকর্তাদের সাথে । হঠাৎ করে লকডাউন হওযায়, টান পড়ল গরীবের পেটে। কোন যোগাযোগ ব্যবস্থা নেই, কাজ নেই, যাবে কোথায় এই মানুষগুলো। এদিকে খবরের কাগজে, টি.ভি মারফত COVID 19 এর ভয়ংকর খবর ছড়িয়ে পড়তে লাগল। ঘোষণা করা হল Social distance 1মিটার মেনে চলুন। যদিও আমার মতে এটা হওয়া ছিল Physical distance. দীলু বলল ‘ স্যার,শহরেত কিছু না কিছু পাওয়া যাচ্ছে, চলুন আমরা গ্ৰামে যাই। প্রশাসনের অনুমতি বা অন্য কাগজ পত্র দীলু ও ওর বন্ধুরা ব্যবস্থা করল। এই সংস্থার সভাপতি অশোক কুমার দেব সক্রিয় ভাবে জড়িত ছিলেন । পরিস্থিতির শিকার মানুষদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য টাকা পয়সার দরকার। সরকারি সাহায্য পাওয়া যাবে না । এর ও কিছু নিয়ম-কানুন আছে। শুরু হলো সংস্থার নিজেদের মধ্যে চাঁদা তোলা। দীলুরা অনেক দিন ধরে এই সব কাজ করে আসছে। আমি নতুন। কারোর কাছে চাইতে পারিনা। যাহোক কিছু মানুষ সামাজিক মাধ্যমে সংস্থার কাজ দেখে নিজে থেকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন এবং কাজ চলতে লাগল। সৎ কাজে টাকা পয়সা যে প্রতিবন্ধকতা হয়ে দাঁড়ায় না, এই জীবনে এসে আবার বুঝতে পারলাম। চলল গ্ৰামের পর গ্ৰামে ত্রানবন্টন ।
IMG_20200802_153643অনেক ব্যক্তি তথা স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা এগিয়ে এলো। ওদের ধন্যবাদ দেওয়া যায় না। তাতে ওদের অপমান করা হয়। কিন্তু আশ্চর্য্য লাগলো ! কাছাড়ের তথা বরাকের গ্ৰাম গুলো দেখে। স্বাধীনতার ৭০ বৎসর অতিক্রম করলো। দুজন সাংসদ ও ১৫ জন বিধায়ক সহ অনেক পঞ্চায়েত প্রতিনিধি আছেন। কিন্তু গ্ৰাম পড়ে আছে গ্ৰামেই। পানীয় জল, যোগাযোগ ব্যাবস্থা, সবচেয়ে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা ব্যবস্থা কিছুরই উন্নতি নাই। গ্ৰামের মানুষের প্রয়োজন পড়ে ভোটের আগে। হয়ত যা কিছু আসে, চলে যায় দালাল ও আধিকারিকের, রাজনৈতিক নেতৃবন্দর হাতে। এইত আমার দেশ।
দীলু সম্বন্ধে আরেকটি কথা লেখা দরকার। একটি মেয়ে টিউশন করে সংসার চালায়। লকডাউনে সব বন্ধ। বাবার ক্যান্সার। সংসারে ওই একমাত্র রোজগারি। কি হবে? দীলু ওরা খুঁজে ত্রান পৌঁছে দিত। একজন বয়স্ক এল. পি স্কুলের শিক্ষক, উনার বাড়ীতে লুকিয়ে ত্রান দিয়ে আসত, লক ডাউনের ফলে পরিস্থিতির শিকার অনেকেই মান সম্মানের জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে ত্রাণ নিতে আসতেন না ।
IMG_20200802_153738এমন অনেকের যাতে সন্মান হানি না হয় তার চিন্তা করে নেতাজি ছাত্র যুব সংস্থার কর্মকর্তারা শিলচর শহরের অনেকের ঘরে রাতের অন্ধকারে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন । আমার পরিচিত অনেককেই পাঠিয়েছি। দীলু ও তার বন্ধুরা ফিরিয়ে দেয়নি ।
জীবনে ব্যক্তিগত অনেক সাফল্য পেয়েছি। কিন্ত নেতাজি ছাত্র যুব সংস্থার সাথে কাজ করে জীবনে এত আনন্দ তা আগে পাইনি। ওরাই আমাকে শিখিয়েছে ” মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য” সর্বশেষে কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই আমার জীবন সঙ্গিনী শ্রীমতি কাজরী ধরকে,
IMG_20200802_153622 সবসময় পাশে থাকার জন্য, সদ্য প্রয়াত সাংবাদিক পিযুষ কান্তি দাস মহাশয় ও তার সহধর্মীনি শান্তশী সোমকে। দীলু তোমরা এগিয়ে চল। আমি আছি তোমাদের সাথে…..

Continue Reading

Barak Valley

সাংবাদিক পেনশন পাচ্ছেন রাজ্যের কুড়িজন প্রবীণ সাংবাদিক ।

Published

on

হাইলাকান্দি, ১৩ আগস্ট: অসম সরকার ২০২১ সালের রাজ্যের প্রবীণ সাংবাদিকদের জন্য পেনশন প্রকল্প ঘোষণা করেছে শুক্রবার। এ বছর রাজ্যের বিভিন্ন জেলার ২০ জন প্রবীণ সাংবাদিককে পেনশনের জন্য মনোনীত করেছে সরকার।

এই কুড়ির তালিকায় রয়েছেন বরাক উপত্যকার দুই প্রবীণ সাংবাদিক। তাঁরা হলেন শিলচরের বিকাশ চক্রবর্তী ও হাইলাকান্দির দীপক রঞ্জন নাথ।

বরাকের প্রবীণ এই দুই সাংবাদিক এবছর সাংবাদিকতার পেনশনের জন্য মনোনীত হওয়ায় তাঁদেরকে অভিনন্দন জানিয়েছেন বর্তমান কর্মরত সাংবাদিকমহল।

দীপক রঞ্জন নাথ কে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ইলেকট্রনিক মিডিয়া অ্যাসোসিয়েশন, হাইলাকান্দি’র  সভাপতি তিলক রঞ্জন দাস (কুমার দাস), সম্পাদক নীলোৎপল দেব সহ অন্যান্যরা  ।

 এছারাও  হাইলাকান্দি প্রেস ক্লাবের কার্যকরী সভাপতি তথা অসম বার্তাজীবী সংঘের হাইলাকান্দি জেলার সভাপতি দীপক রঞ্জন নাথ পেনশনের জন্য মনোনীত হওয়ায় তাঁকে অভিনন্দন জানিয়েছেন প্রেস ক্লাবের সম্পাদক সহ অন্যান্য প্রেস ক্লাবের পদাধিকারী।

এদিকে, হাইলাকান্দি জেলা থেকে এবছর একমাত্র দীপক রঞ্জন নাথ সাংবাদিক পেনশনের জন্য মনোনীত হওয়ায় খুশির জোয়ার হাইলাকান্দির সাংবাদিক মহলে। অন্যদিকে, হাইলাকান্দি রোটারি ক্লাবের পক্ষ থেকেও অভিনন্দন জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য সম্প্রীতি হাইলাকান্দি রোটারি ক্লাবের মিডিয়া হিরোর সম্মাননা পেয়েছিলেন প্রবীণ সাংবাদিক দীপক রঞ্জন নাথ ।

Continue Reading

Barak Valley

মাধবধামে হিন্দু জাগরণ মঞ্চের জেলা কমিটি পুনর্গঠন

Published

on

সুব্রত দাস,বদরপুর :: গত বুধবার শ্রীভূমি (করিমগঞ্জ) জেলার শ্রীগৌরী মাধবধামে হিন্দু জাগরণ মঞ্চের শ্রীভূমি জেলা কমিটি পুনর্গঠন করা হয়। হিন্দু জাগরণ মঞ্চের ক্ষেত্রীয় সংগঠন মন্ত্রী বিজয় পাল ও হিন্দু জাগরণ মঞ্চের দক্ষিণ আসাম প্রান্তের বেটি বাঁচাও প্রমুখ দেবজ্যোতি দাসের উপস্থিতিতে এই কমিটি পুনর্গঠন করা হয়। এতে মনোজিৎ চক্রবর্তীকে শ্রীভূমি জেলার সভাপতি,সহ-সভাপতি রাজীব শর্মা,সুজয় শ্যাম,রূপম শর্মা,সম্পাদক-লিটন ধর,কোষাধ্যক্ষ দেবরাজ চক্রবর্তী,সহ-সম্পাদক সন্দীপ মজুমদার,যুবা বাহিনী প্রমুখ বান্টি রায়,বীরাঙ্গনা বাহিনী প্রমুখ অনুরাধা মালাকার এবং প্রচার প্রমুখ সাজন দেব কে দায়িত্ব দেওয়া হয়।

Continue Reading

Barak Valley

আগামীকাল শিলচরে চারটি কেন্দ্রে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে

Published

on

জনসংযোগ, শিলচর ১ আগস্ট :– আগামী কাল সোমবার শিলচর শহরের চারটে কেন্দ্রে কোভিশিল্ড ভেকসিন দেওয়া হবে ।
নাজিরপট্টি মডেল স্কুলে স্লট বুকিং এর মাধ্যমে কোভিশিল্ডের দ্বিতীয় ডোজ ৩০০ টি দেওয়া হবে । এখানে অন স্পট রেজিস্ট্রেশনে কোন ধরনের ভ্যাকসিন দেওয়া হবে না ।
অম্বিকাপট্টির দূর্গাশংকর পাঠশালায় স্লট বুকিংঙে প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ১০০ টি করে এবং অন স্পট রেজিস্ট্রেশনে প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ আরও ১০০ টি করে মোট ৪০০ টি ভ্যাকসিন দেওয়া হবে।
সিনিয়র সিটিজেনদের জন্য শহরের গভর্নমেন্ট গার্লস হাইয়ার সেকেন্ডারি স্কুলে অন স্পট রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ কোভিশিল্ড ২০০ টি করে মোট ৪০০ টি ভ্যাকসিন দেওয়া হবে । এখানে স্লট বুকিং এর মাধ্যমে কোভিশিল্ড দেওয়া হবে না। এছাড়া শিলচর কনকপুর রোডের তারিণী মোহন এলপি স্কুলে স্লট বুকিংঙে প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ১০০ টি করে এবং অন স্পট রেজিস্ট্রেশনে প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ আরও ১০০ টি করে মোট ৪০০ টি ভ্যাকসিন দেওয়া হবে।

Continue Reading

Trending